পামেলা চক্রবর্তীর কবিতা “একটি রূপকথার জন্ম!”

   সব শব্দের অর্থ থাকলে অর্থহীন শব্দেরা নিঃশব্দ হয়ে যায়।
          “হাজার কথা”র ভীড়…
                    নিঃশব্দ হলে মন্দ কি?
তবে ,সেইদিন, এক ‘সাধারণ’ছেলে….
                    যখন এক ‘অ’ মেয়ের সামনে পড়ে,
                              আর পথ হারায়,
তখন,  ‘না-কথা’রা ‘শব্দ’ আর ‘নিঃশব্দ’র মাঝে…
                         অর্ধ-নারীশ্বর হয়???
                        বড়ই জটিল প্রশ্ন।
এরপর,একদিন,
                     ‘চুপকথা’, ‘না-কথা’ আর ‘অর্থহীন’রা…
           ভীড় করে সাদা খাতার পেছন পাতায়।
         ফিসফিস করে তীব্র থেকে ‘তীব্রতর’ হয়।
‘তীব্রতর’ ‘মৃদু’ স্বপ্ন হয়ে…দিনের বেলায়…
               জোৎস্না নামায়???
                অ-মীমাংসিত  প্রশ্ন।।
সব প্রশ্নের মীমাংসিত উত্তর থাকা জরুরী নয়।
তবে একলা কলম সৃষ্টিশীলতা হারায়।
বরং     কিছু জিনিষ অজানাই থাক্।
            কিছু শব্দ থাকুক অর্থহীন।
অজানা অর্থহীনেরা  ‘সুর’ অথবা ‘বে-সুর’এ …
      কোন একদিন…
সৃষ্টি করুক এক অসম্ভব গান!
তারপর জীবনের মূল সত‍্য…
    অবিশ্বাস‍্য হয়ে ধরা দিক
এক অন্ধকার ভোরে,
‘সাধারণ’  ছেলেটি  ‘অ’মেয়ের সাথে অসাধারন হোক্।
হেঁটে চলুক্….অ-চেনা  ‘চেনা’ পথে…
         যুগ যুগ ধরে…!!!

You may also like...

Leave a Reply