মৌসুমি ভৌমিকের গল্প ‘গল্প কবিতা গল্প’

(১) তিয়াসের কথা হঠাৎ করে ঘুমটা ভেঙ্গে যেতেই তিয়াস চেষ্টা করে বোঝার কোথায় রয়েছে সে। ঘড়ির টিকটিক শব্দ ছাড়া আর কিছু বুঝে

সুশান্ত কুমার সাঁতরার গল্প ‘বিষাদ রঙের তর্জমা’

কি মনে করে হঠাৎ ই নীল চলে যায় তার ছোট্ট বেলার বন্ধু যতীন দের  বাড়ি। যতীন ওর ছোট্ট বেলার বন্ধু।

শ্বেতা ভট্টাচার্য-এর অনুগল্প ‘রঙ’

গল্পের বই থেকে চোখ তুলতেই শিমুল ফুল ভরা গাছে, খুনসুটি রত দুটো চাতক পাখির দিকে নজর যায় মিলির। বসন্তের আভাস

দেবায়ন কোলের অনুগল্প ‘ভালোবাসার রঙ’

বিয়ের পরে একবারই মাত্র দোল খেলার সুযোগ হয়েছিল সুতপার। অর্ণব পেছন থেকে সেদিন হঠাৎ করে তার শ্যামলা রঙের মুখটাতে আবীর

অঙ্কিতা ব্যানার্জীর কবিতা ‘অভিমানী প্রেম’

এ বসন্তদিনে প্রেমপদ‍্যই মানায় আমি নাহয় আজ বিরহী দুচোখ মেলে বলি ফাগুন, কষ্টও পেতে হয়! প্রেম ছেড়ে যাক ,জলে ভরে

সুচেতনা গুপ্তর অনুগল্প ‘বুরা না মানো, আজ হোলি হ্যায়’

হোলি হ্যায়! উফ, আবার শুরু হলো। সবে সকাল দশটা। এর মধ্যেই গোটা কমপ্লেক্স জুড়ে লোকে লোকারণ্য। সুতপার কাছে এই দিনটা

দোলা সেনের গল্প ‘বসন্ত –রাগ’

শনির রাতে দমকা ঝড় উঠল। হালকা, খুব হালকা ধারাপাত। তাতেই রবিবারের সকালটায় বেশ শিরশিরে আমেজ। ছটার সময় নিত্যকার প্রাতঃভ্রমণে যাই

পিউ দাশের গল্প ‘প্রেম’

“হোলি হ্যায়!” দূর থেকে ভেসে আসে কাদের যেন চিৎকার। সেই শব্দকে ছাপিয়ে ওঠে ধ্রুবর গলা। “অসম্ভব!” চেঁচিয়ে ওঠে ধ্রুব। “অসম্ভব!”