শেলী নন্দীর কবিতা ‘মন্দ হলে ‘

অবুঝ মনের অবাধ্যতায় ডাক পড়ে সর্বনাশী খেলার।
গোপন থেকে সঙ্গোপনে কুড়িয়ে রাখি ইচ্ছে পালক।
মন্দ হওয়ার বেপরোয়া শক্তিতে পরাজিত হয় মনের রক্তকরবী।
 মনের সাথে শরীর মেশে, শরীর জুড়েও মন।
লজ্জারা যায় নির্বাসনে শীতের ঝরাপাতা হয়ে।
শিহরন জাগরন মিলেমিশে রং পায় উষ্ণতার বুকে।
অভিমানী সত্ত্বা বেপথু হয় অভিসারী বাঁশীর হাতছানিতে।
শিশিরের ঠোঁট ছুঁয়ে আদুরে মেঘ খেলা করে দিন জুড়ে।
রাতের জোছনায় আরো ঘন হয় মেঘ মাল্লার।
লুকোচুরি বায়নারা রোমাঞ্চিত হয় নিবেদনের অছিলায়।
আশ্লেষে মুক্তি পায় গুমড়ে থাকা প্রবল আবেগ।
স্নায়ু পথ জুড়ে নীরব কামনা ঢেউ তোলে শিরায় উপশিরায়।
দুমড়ে মুচড়ে ভাঙ্গা গড়ার উত্তেজনা হিল্লোল বয়ে আনে।
খুচরো তোমায় টুকরো করে প্রাণ বায়ু নি চোখ বুজে।
পরকীয়া আবার ডুব দেয় মুক্তোর খোঁজে ঝিনুকের দেহে।
নিকষ কালো অন্ধকারে ডানা কাটা নিষিদ্ধ প্রেমের মত্যু হয় আবার।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *