সৌমেন দত্তর কবিতা ‘পরিণীতা’,

প্রহর গুলো অরুণা জালে ঘিরেছে,
অভ্যাসের চিলেকোঠার বদ্ধতা থেকে,
তোমার টানে কিনারাহীন কিনারায়
পদার্পন।
রজনীগন্ধা নেই,বকুল গাছও নেই,
তবুও ঘরছাড়া এ মন।
মিথ্যে মুখে সত্যির স্নো পাউডারে
শহরটা চকচকে,
কান্না আর হাহাকারের নিত্য আনাগোনা।
কষ্টের দহনে,দগ্ধ আর্তনাদ,
এতো কোলাহল আর্তনাদের মাঝে
শান্তি খুঁজি।
রঙিন জৌলুশে ঠাসা,
চতুর্দিক উনকোটি চৌষট্টি কর্মে ব্যস্ত।
সমাজ ভাসানো প্রেমে,
চাপা খায় ট্রামে নিত্য কারা?
পরিপূর্ন আত্মনিবেদন কি সহজ কাম্য?
আজ সব দাহ দুঃখ ভুলে করলাম
আত্মসমর্পণ।
কি গড়বে গড়ো.. ;
মুখ ফুটে বললেই তো হয়,
ব্যোমকেশে কেন মাতো।
 হারমোনিয়ামে পিন আটকালে সেই সুরে,
পালতোলা সপ্তডিঙ্গার বহরে
প্রাণ চঞ্চল।
ঠোঁটের যে ছাপ,তা নিয়েই ফেরো,
কাগজের নৌকোয় তো ভাসিনা।
নির্বাসনের দন্ডে পাঠালে
স্থাপত্য ভাস্কর্য কি গুরুত্ব পাবে..?
আকাশ বাতাস কাঁপিয়ে নামলো
অঝোর বৃষ্টি।
–সৌমেন দত্ত।পলাশীপাড়া। নদীয়া।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *